দেশ দুর্লভ প্রজাতির ব্যাঙের গঠন

এই প্রথম দেশটি একটি দুর্লভ প্রজাতির ব্যাঙ্গের দেখা দিয়েছে। দেশ কর্ণফুলে তীর পের মিশ্র চিরবুজ বনে স্থায়ী জরি পর এই প্রজাতির ব্যাঙ্গের মিলন।

এই প্রথম গ্রুপ একটি দুর্লভ প্রজাতির ব্যাঙ্গ গারবিলস স্টিম ফ্রেগার দেখা দেখে, ছবি: একাত্তর এলাকা

“>
ব্যাঙ

এই প্রথম গ্রুপ একটি দুর্লভ প্রজাতির ব্যাঙ্গ গারবিলস স্টিম ফ্রেগার দেখা দেখে, ছবি: একাত্তর এলাকা

এই প্রথম দেশটি একটি দুর্লভ প্রজাতির ব্যাঙ্গের দেখা দিয়েছে। দেশ কর্ণফুলে তীর পের মিশ্র চিরবুজ বনে স্থায়ী জরি পর এই প্রজাতির ব্যাঙ্গের মিলন।

মামু মোটা খসখসে সবুজের ওপর মেটে রঙের ছোপছোপ দাগ আছে আর পেটের অংশ সাদা। এ বিষয়ে গবেষনার পর জানা গেছে ব্যাঙের এই প্রজাতির বৈজ্ঞানিক নাম আমোলোপস গারবিলাস। এরা আমফিবিয়া শ্রেণির রানিদা পরিবারের অর্ন্তভুক্ত। বহু ইংরেজি নাম গাবিলস স্টিম ফ্রিগ।

কবির বিন আনোয়ারের অধিকারে রিভার অ্যান্ড্রয়েড লাইফ কোয়েস্ট প্লেয়ার একটি অনুসন্ধানী রাঙামাটির বরকল একটি সংরক্ষিত বনে এই দলটির নতুন প্রজাতির ব্যাঙ্গের পান। কবির বর্তমানে উত্তর দপ্তরে মহা পদে কর্মপরিলক।

গত ১৬ জানুয়ারি কবির ও তাঁর গহীন অন্যান্য সদস্য রাজ, সাইন সোহেল, ফজলে রাব্বি এবং শাকিল অরণ্য প্রাকৃতিক বকলের এই সংরক্ষিত বনে একটি খাড়া ঝার কাছে এই প্রজাতির ব্যাঙ্গ দেখতে পান। তিনি, তারা মৌলিক প্রণালী ও বসবাসের বিভিন্ন তথ্য নথিভুক্ত করেন। কল্পনার উপর ভিডিও ও স্থিতও ধারণ করা দৃশ্যের চিত্র সদস্যরা।

ভারত ও মায়ানমার পাহাড়ি ঝর্ণার ধরে মতবাদে স্মিম ফ্রিগের বসবাস। উত্তর ও উত্তর ভারত, তিব্বত এবং মায়ানমার আদি আবাসভূমি। এর আগে উচ্চ অরুণাচল প্রদেশ এ প্রদেশের ব্যাগের উপস্থিতি রেকর্ড করা হয়েছিল। বনের বন এ প্রবাহমান ঝর্ণায় বংশবিস্তার করে। তবে সম্পর্কে এখনও বিশদ কিছু জানাতে।

এছাড়াও পড়ুন  শিল্প নিজেই

দেশ এই প্রজাতির ব্যাঙের আবিস্কারের ফলে এখন স্টিম ফ্রেগার আবাস কৌতুক হিসাবে রাজনীতিও থাকবে প্রতিবেশি দেশগুলোর সাথে। তবে আমার জীবনচক্র, ইতিহাস এবং আবাসক সম্পর্কে আরো গবেষণার প্রয়োজন।

এই প্রথম গ্রুপ একটি দুর্লভ প্রজাতির ব্যাঙ্গ গারবিলস স্টিম ফ্রেগার দেখা দেখে, ছবি: একাত্তর এলাকা

এই খবরের ইংরেজি সংস্করণ পড়তে এখানে ক্লিক করুন

উৎস লিঙ্ক