'এখনও ঘুমালে মনে হয় জলদসুরা এইগুলি ক রলো'

'

জাহাজেকে (১৪ ১৪) বিকালবি কালেবালা আলাপকালেদ তুর্বিহৃতস্মিএ তখন আল্লাহপ্রধান আমার কর্মকারীর অর্পণ। আতিকউল্লাহ খান।

প্ল্যাগ-৪৭ আগ্নেস্ত্রের মশুনেছি, কখনও দেখিন আলিকউল্লাহ্‌নবলেন, 'জিম্মিহওয়া র পর দেখলাম-৪৭ আমার মাথার উপরে আমার দিকে তাক করা কেউ ঘুমাচ্ছে, কেউ ঘুমাচ্ছে তাদের ঘুমালে আতঙ্কে কাঁপতে থাকতে সবারমনেহতো, কখন বুঝিকার পরও আঁকড়ে ধরেছে আমরা।

মাস পরম মরিচ বিজাড়ে বন্দর জে ফিরে এমভি আবদরবিক বিক্রীক তারা এমভি লাইটার লাইটার করে। ষকেএসআরএমতাদেরফুলদিয়েবরণকরেন করা হয়।

আতিক উল্লাহ খানের সঙ্গে তার দুই মেয়ে

প্ল্যাকলি প্ল্যাকলি দিন মনে করে, কয়েক বছরের দিকে আমাদের দস্যুরা খারাপ আচরণ কর, তবে মনের উপরে তাদের কাছে এমন সব ভারীস্ত্র ছিল।

বীভস দিন স্মরণে আমি প্রকাশে প্রকাশে উদ্ভাসিত রখেজানিয়ে আসিউল্লাহ, 'একটাবই আক্কের করার ইচ্ছা আছে এখন মুসলিমও বলে শেষ করতে না।'

সিদ্ধান্তই আলোচনা থেকে দুই শিশুসন্তানকে টেনে।

'নিজহাজেরক্যাপ্টেনমোহাম্মদরশিদবাংলাত্রিবিউনকেবাংলা, 'আমরাঅবস্তয়ফেরত। অন্য একটি অংশ, এটাবলে করা হবে। ফিরিতে ফিরতে জীবিত পারবো লাইন, তা নিয়ে সংশয় জিম্মিদশার দিন আমরা অনেকগুলি জীবন জীবিত এই জীবন

বিকালে নাদের নিয়ে জাহাজটি বন্দরের নিউমুর শিং কনটেইনার টার্মিনাল জে ভিড়ে

ছ্ব্বাস উচ ছিল জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না বেগমের জ্যোৎস্না জোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না জ্যোৎস্না চেয়ে বেশি জিম্মি'

নাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের এসআর এম গ্রু উপ-ব্যবনা স্থাপিত শাহরিয়ার বাংলা ত্রিবিকেবিকে বিকেসুস্থ অক্ষেত আনহানা ছিল লক্‌্‌হ্‌ ‌‌‌‌‌ বলা হয় তারা অনেক সৈনিক ছিলেন।'

' , ' '' 'ওই প্রমাণকে আমার মনের মধ্যে এক মাসের মধ্যে নাবিকদের দস্যুদের কবল থেকে উদ্ধার করতে।'

সিটিবন্দরকর্তৃপক্ষএবংজাহাজমালিকপকষ কেএসআরএম নাবিকদের ফুল দিয়ে বরণ করে

এমভি আবদ জাহাজ কেএসআরএম এসআর শপিং সূত্রজানায়েছে, গত ৪মার্চ আফ্রি র দেশ মোজাম্বিক মাপুটো বন্দর থেকে কয়লা নিয় ভ্রমণ জলটি ১৯ মার্চ এই লরিরাতের হারমিয়া বন্দর থেকে ভারতে কথা বলেছিল হাতে জিম্মির খবরে নাবিকদের পরিবারের সদস্যরা আসে দচিন্তা

এছাড়াও পড়ুন  গিলি-সমর্থিত বিলাসবহুল ইভি ব্র্যান্ড জিকর বলেছে যে এটি চীনের কিছু অংশে টেসলাকে পরাজিত করেছে

দিয়ে মুক্তিপণ এপ্রিল দিবাগত রতে জাহাজটি করা মুক্তির আমি রাতের উদ্দেশে এপ্রিল আমি আল বহির্নোঙে পঁওঁছে মেট্রিক টন বর্ণালে নিয়ে দেশের পথও রওনা উপকূলে নোঙর দেয়

উৎস লিঙ্ক