বাগেরহাটের মোরাঘাটের ঘাটবিড়া এলাকায় বিয়ে থেকে ফেরার পথে এক নারীকে গণধর্ষণ করেছে একদল কিশোর।

শুক্রবার (১২ এপ্রিল) রাতে 19 বছর বয়সী মহিলার উপর নৃশংস হামলার স্থান হিসাবে একটি পরিত্যক্ত টিনের চালা ব্যবহার করা হয়েছিল।

হামলার শিকার ব্যক্তিকে আজ পুলিশ উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বাগেরহাট জেলা হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

এ ঘটনায় পাঁচ কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- মোল্লাহাট উপজেলার কাহালপুর গ্রামের ইউসুফ শেখের ছেলে আকরাম শেখ (১৯), চান মিয়া শেখের ছেলে রাজিব শেখ (১৯), তারিক মোল্লার ছেলে সোহাগ মোল্লা (১৮), বেল্লালের ছেলে নাসিম মোল্লা (১৯)। মোল্লা ও শাহজান শেখের ছেলে কমির শেখ (২২)।

মোল্লাহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম আশরাফুল আলম জানান, নির্যাতিতা তার স্বামী ও দেড় বছরের শিশুকে নিয়ে শুক্রবার রাতে মোল্লাহাট উপজেলার সরসপুর গ্রামে একটি বিয়েতে গিয়েছিল।

বিয়ের পর তাদের (ভিকটিম ও তার স্বামী) আলাদা মোটরসাইকেলে করে বাড়ি নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল। স্বামীকে রেখে গেলেও হামলাকারীরা ভিকটিমকে মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে যায়। ওসি বলেন, ঘাটবিলা এলাকায় পৌঁছালে তারা তাকে জোর করে একটি পরিত্যক্ত টিনের চালায় নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে।

খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে যায়, হামলার শিকার ব্যক্তিকে উদ্ধার করে এবং ঘটনাস্থলে চার কিশোরকে আটক করে।

পরে অন্য একজনকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছিল, অফিসার বলেন, ভুক্তভোগী এই ঘটনায় জড়িত আটজনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

ওসি আরও জানান, বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশ অভিযান শুরু করেছে, যারা বিয়ে হয়েছিল সেই পরিবারের আত্মীয় বা পরিচিতজন।



উৎস লিঙ্ক

এছাড়াও পড়ুন  ট্রাম্প, 6 জানুয়ারী দাঙ্গাবাজদের বিচার করতে ব্যবহৃত বিচার আইনের ফেডারেল বাধা পর্যালোচনা করবে সুপ্রিম কোর্ট