অকলে একুবলিমেলা গত অনলিঙ্গ সাহিত্যের বিভিন্ন অংশে আলোচনায় অংশগ্রহণকারী মানুষের মধ্যে মিলের মিলের হসিবে। ৮০২টি। বইটি হাজির১৭হাজার ৭৯৬টি। প্রায় কবিতা তার বইয়ের মোট বই এক যেখানে তৃতীয়া অংশ। বিষয়ভিত্তিক বইয়ের হিসেবে সবচেয়ে বেশি এটি।

গত (২৯ এপ্রিল) পর্যন্ত বাংলা একা ডেমিরজনসংযোগে প্রাপ্তথ্যাথেকেজায়, ২ ০২০সালে বইমেলায় মোট বই আসে ৪ হাজার ৯১৯টি। এরমধে কবিতার বই ১ হাজার ৫৮৫ টি। এর আগে ২০২১ সালের ১৮ মার্চ থেকে শুরু মেলায় বই আসে মোট ২ হাজার ৬৪০টি, এর মধ্যে কবিতার বই ছিল ৮৯৮টি। ২০২০সালেমোটবইআসে৩হাজার১২৪টি, এর মধ্যে তার বই ছিল ৯৭০টি।

২০২৪ এর ২৮তম দিন পর অ্যন্ত মেলায় নতুনবইআসে৩হাজার৩৮৩টি, এর মধ্যে ২৮তম দিন পর অ্যন্ত মেলায় নতুন বই আসে।

সংখ্যাটা আশা জাগানিয়া কবিতার মান নিয়ে বিতর্ক রয়েছে। ঠিক রাখতে না পারালে কবি তার গৌরবার হারাতে হবে।

শান্তি স্নাতকোত্তরের শিক্ষার সিদ্দিক ফারুককেন, সর্বোচ্চসুন্দরবিষয়ল সঙ্গেকবিতারতুলনাদেওয়াহয়, সুন্দর। কবিতার কবিতার আত্মকর্মনিষ্ঠ করতে পারেন না কবিতার কবিতা যা আছে তারচেয়েকা আরও বেশি সংগ্রহের হুকুম, কবিতা যা আছে তারচেয়েঙ্কা জড়ো হয়, কবিতার বিতার্কিক ফারুককে এখন পর্যন্ত কবিতার অনুবাদ করতে হয়। , মির্জ গা গালর অনুবাদ, মির্জা গালি বের কবিতা, ফয়েজ আহমেদ ফয়েজ কবি তা সংগ্রহ করা হয়েছে। কবিতারবইন পর্যাবেকৌষর রয়েছে, নতুনকবিদের বই সংগ্রহ করার চিন্তা রয়েছ। তবে নতুনকবিরা পাঠকরী করতে পারছে, তও চিন্তারবিষয়।

কবিদের দাবি, পাঠ করা কবিতার মান নিয়ে প্রশ্ন তুলাপারেন, এইকাজবেষকদের

কবিতার মান নিয়ে ঢাবির স্নাতক শেষের শেরার্থমিদ্যাইফলেন, কবিতাকে আমারকাছে এ ক ১ রনের শিল্প মনে হয়। নি য়ে লেখা উচিত মনের কথাটার সুনকবিদের ক্ষেত্রে আলোচনা করা হচ্ছে না, ঘাটতি রয়েছে। যদিউদাহরণদেই আমি, হেলালহাফিজ একতাকব্ যগ্রন থের প্রকাশের ২৬ বছর পর নারী কবিতার বই বের করেছে। এ প্রস্তু তি-সাধনার ঘাটতি আছে বলে আমার মনে হয়, যার কারণে কব তির মান খারাপ।

এছাড়াও পড়ুন  অপশক্তি বিনাশ ঘটার প্রার্থনায় পররাষ্ট্রমন ত্রি

'কবিতা সমসাময়িকরা বিচার করতে পারবে না'

কবিতার সংখ্যা বেশি ছিল বলে দাবি করছেন কবিরা। ।

কবিতার সংখ্যা ও মান নিয়ে কবি হাসান রোবায়েত ব – দশ বছর ধরে এটা হচ্ছে না বাংলা ভাষার কারণে কবিতার সংখ্যা বেশি।

মানিয়েতিনিবলেন, কবিতারজন্যসমস্যময়িকরাক এখন ওবিকনা। কবিতার মান বিচার করতে না তারা কবিতার মান বিচার করতে ২০ বছর সময়।

কবিতার মানসম্মত বক্তব্যের দাবি ২০ বছর অপেক্ষা করতে হবে

কবিতারমানেপ্রশ্নউত্তরেযশোর-৩আসনউত তরেযশোর ৩আসন সাংসদ ও কবি নাবিল আহমেদ বলবেন, কবিতা মানসম্প নন মানহীন মনে কি ভবিষ্যত বিচার করবে। যেকোনওবে সবদিকই আছে তাকে ভালো, আবার কেউ বলবেন আরও বলুন আমি বলুন যেকোনও ধারাুক থাক।

কবিতারবইসংখ্যা বয়েশি হিসাবে দেখা যাবে।

'পাঠকবিতারমানেপ্রশ্নকরতেপারেন'

জাতীয়কবিতাপরিষদেরসভাপতিকবিঅধ্যাপকড। মুহাম্মদসামাদবলেন, পাঠকবিতারমানিয়েক বলতে পারেন না।

তবে কবিতার মান খুঁজে বের করেছেন গবেষণার সমাধান । ঢাকা প্রশ্ন সমাধান বাংলা অনুবাদক যার বায়ত পুলিশকদেরীবলেন,হ্যাঁ,কবিতারমানঠিকন ১ ইই কিন্তু এখন মান দেখার জন্য যেমন ইচ্ছ বই প্রকাশ করে ফেলছে কবিতা না বুঝলে, কবিতার থহিন কবিতার। বই প্রকাশ করা তোকে এখন খুব সহজে।

এবিষয়ে জানতে তিনি বলেন, আশিনবইষ্যালয়ের, আমরা যারা কবিতা তাম সে সায়ময় এতদের পাতায় আমাদের পরীক্ষা। আমরা বই বের করতাম তখন অনেক কষ্টের ছিল। এখন তো কম্পিউটা কম্পোজ করে বই প্রকাশ করতে সময়ই অংশ খাই। অনেক প্রকাশক আছে যারা লেখকের কাছ থেকে টাকা নিয়তে বই প্রকাশ করে।

ছবি: প্রতিবেদক।





Source link