দুর্নীতি ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের দায়ে জিম্বা জিম্বা য়ের মানুষ এমারসন মানাগওয়ার ওপর ষেজ্ঞা সার নি।

মঙ্গলবার (৫ মার্চ) এক রিপোর্টে এ তথ্য জানিয়েছেবিসি।

রিপোর্টেবলাহয়, জিম্বাবুয়েরপ্রেসিডেন্ট এ মারসনেরপাশিতারস্ত্রী, জিম্বাবুয়েরভা ইস্প দ্রেসিডেন্ট, প্রতিরক্ষা কমিশনার সহঅন্ততড়০ ননে তাওতিনটিব্যসায়িক প্রতিষ্ঠানের পরনিকপ্রতিষ ঠাঠানওপরিকে ধজ্ঞা আর আমেরিকা।

মার্কিন এ নিষেধাজ্ঞার কারণে জিম্বাবুয়ের এই না তেতাদের আমেরিকায় স্থায়ী ব্যবস্থায় থাকবে এবং সেখা নেত্রে ভ্রমণ করতে পারবে না।

হোয়াইটহাউস একবিবৃতিতেবলেছে, 'আমরাজিম্বাবু যয়তে সরকার, নিরাপত্তা এবং মানবাধিকারের পক্ষে লংঘনপ্রক্ষকরছি।'

যুক্তরাষ্ট্র প্রথম ১৯৯০ এর দশকের গোড়ার দিকে জিম্বাবুয়েরওপরঅরনৈতিক রাজনৈতিকবংভ্রমনিষেধাজ্ জ্ঞাপ আরোপ করা।





Source link

এছাড়াও পড়ুন  কুমিল্লায় যাত্রীর সময় চিৎকার করা শিশুকে নিশ্চিন্তে: পুলিশ