বনদস্যুদের থাবায়ের দিন ছোট হয়ে আসছে বান্দরের থানচির সাঙ্গু সংরক্ষিত বন। এই বনের ভেঁতরে জনসাধারণ দেখতে দেখতে অবাধে চলাফেল স্থানীয়রা বনদস্যুরা গাছের উপর নিয়ন্ত্রিত লোক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন না বন বিভাগ এমন এখন পর্যন্ত একটি সমর্থন করছে। তারা।

স্থানীয়দের যোগ, বনরক্ষায়উদাসীনবনবিভা।

পরিবেশবিদওগবেষকবলেছেন, দিনদিনছোটহয়েআসছ এ আঙ্গু রিভার্ভ ফরেস্ট।পালন করতে না পালে বিপর্যয় পরীক্ষা পাহাড়ি এইঅঞ্চল।

খোঁজেজানাযায়, সাঙ্গু বাংলাদেশের দ্বীয দীর্ঘতম নদী। তার প্রতিরোধ বান্দরবানের গহীনে সঙ্গু-মাতামুহ রিজার্ভ ফরেস্টের মধ্যে। ১৮৮০সালেসংরক্ষিত ঘোষিত এইবনাঞ্চ লদেশের একত্র কুমারী বনের পরিচিতি।

বনকে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ১৮৮০ সালে এই বদলের আয়তন ছিল ৮২ হাজার। তবে বদলাতে আয়তন অনেক নদীতে চলে গেছে। সেজন্য ভুল ক্ষতি নষ্ট হয়েছে। তবে কি পরিমাণগাছনষ্টহয়েছে, সেহিস আবনেইবনব ভাগের আছে। কারণ এখনও তারা জরিপ করেন।

২০১১-২০১৫ সাল পর্যন্ত সাশু বনের উপর জরিপয় কোম্পানি সংস্থা সংস্থা ক্রিয়েটিভ ন্যাভিশন অ্যাটয়েন্স (সিএ)। উভচর প্রাণী এবং বিরল প্রজাতির পাখি অস্তিত বিলীন হয়ে গেছে।

২০১৬ সালে এই বনবিভাগের চিত্র বিশ্লেষণ করেছে বংলাদেশ মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন স্থান (স্পারসো)। স্পারসোরপ্রধানবৈজ্ঞানিক কর্মকর্ত ড. মো. মাহমুদুর রহমানের বিচারে এর চিত্র বিশ্লেষণ কল্পে বলা হয়, স্যাটেলাইটের মাধ্যমে ব্যাখ্যা করা হয় ৮৭ হেক্টরের চিত্র বিশ্লেষণ করা হয়েছে।

শেষ ২০২১সালে এই বনবিভাগের উদ্যোগীনহাজারফুটগ বা ছন্দরবানের একটি সমিল থেকে জ্যোড়ো বনে ক্বব্দ ক্‌ব্দে ক্‌ব্দে ক্বোড্‌ড্‌ করা হয়েছে। যদিও এলেমলাও এলাভিস্টেশন করা হয়েছে।

বন বিভাগের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ২০১৬ সা‌লে সাঙ্গু রিজার্ভ রিজার্ভ দা‌য়ি‌ত্বে থাকা বিভ াগ ীয় ীয় কর্মকর্তা মিয়ার মিয়ার নেতৃ‌ত্বে থানচিির ইয় াং‌রি থে‌কে ক‌য়েক জব্দ হকফরা নিলা‌মে নিলা‌মে নিলা‌মে হয় করা‌ বদ‌লি রেঞ্জ রেঞ্জ রেঞ্জ রেঞ্জ থান‌চি রেঞ্জ রেঞ্জ রেঞ্জ রেঞ্জ থান‌চি রেঞ্জ থান‌চি রেঞ্জ থান‌চি থান‌চি থান‌চি থান‌চি থান‌চি থান‌চি থান‌চি থান‌চি থান‌চি থান‌চি থান‌চি থান‌চি থান‌চি থান‌চি থান‌চি থান‌চি থান‌চি থান‌চি তবে কথা বলা হয়েছে।

বর্তমানে সাঙ্গে রিজার্ভ ফরেস্টের আয়তন কতটুকু জানাতে পারেন বান্দরবানের অঞ্চলের কর্মকর্তা মোহম্মদবদুর প্যারহমান বলেন, 'অনেক বছর ধরেজরিপহযন বমেন আয়তন আমাদের জানাচ্ছেন, আয়তনে বসতি আছে আমাদের কাছে, কারণ সেখানে আমরা জঠের জঠর অধ্যক্ষ অনেক জঠোপাড়া ওখানে। পর বলতো পারবো কী পরিমাত

এছাড়াও পড়ুন  ইউক্রেনীয় ড্রোন রাশিয়ার ক্রাসনোদর অঞ্চলে দুটি তেল শোধনাগার এবং বিমানবন্দরে হামলা করেছে, কিয়েভ সূত্র বলছে - টাইমস অফ ইন্ডিয়া

বনাঞ্চলের নির্বাচনের বনদুর্দদের অভিযোগের অভিযোগ করে আবদুর রহমান আরও বলেন, 'মঙ্গল পাকিস্তান সাঙ্গু বন অংশে আমাদের ব্যবহার য হাওয়া সম্ভব হতে পারে না।'

বনবিভাগের মোটি আশপাশের বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জ্যানা করা হয়েছে, সাহু দুই পাড়ে এক জায়গায় দাঁড়ি‌য়ে থাকতে শতবর্ষী গাছ। ও গামার সহ কর্মাশ্রম প্রজা তিরসধু গাছ। যোগসূত্র গাছ পাচার করলো তাদের বিদ্রোহে বিদ্রোহে পর্য়ন্ত একট কৌশলে গাছ কাটে।

স্থানীয় থেইং যোগে গ্রামী সহ বনবাসনলগ্গ বড় মদক, রেমাক্রি ও তিন্দু এলাকা রজামালসওদাগর, নাজিমসওদাগর, মহিউদ্দীন, সালাউ দ্দিন ক্যি গাছাজন গাছ কেটে পাচার করছেন। রি, আন্ধারমানিকওলিকরি এলাকায় গাছ কে নেওয়ার সাক্ষী হিসাবে শিকড় ও গোড়া পড়ে আছে।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে থানচির গাছ ব্যাবসায় মহিউদ্দীন ও সালাউদ্দিন জানান, আগে অকে অনেগেয় ছাকেটেছে।

সাঙ্গু সংবন বন থেকে কাঠ নেওয়ার সাক্ষী হিসাবে শিকড় ও গোড়া পড়ে আছে

স্থানীয়দের, বনরত ব্যবস্থা ব্যবস্থারক্ষায়কাঠুরিয়াদ তার সরানো, বন‌্‌ অসাধুর অধ্যক্ষ বিরুদ্‌ধে বিভাগ গ্রহণ, ছোট মদক, মদক, রেম রাক্রি ও তিন্দু এলাকায় জো পারমিট ও কাঠের বড় আঁধার এবং উচ্চদীপের কমিটি গঠন করতে হবে।

'স আ বছরই কাঠের নদীপথে নি‌য়ে যেতে।

নিরাপত্তা ক্‌রে রেঞ্জিদের বিরুদ্ধে আগে বল্লেখরেথানচিরহেডমানপাডখ করেথানচিরহেডমনপাডখ করেথানচিরহেডমনপাড রঅনপম মারমা ব‌লেন, 'পাশপাশি গাছ চাষাবাদ ধরতে হবে।'

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বন বিভা গের এক কর্মকর তাবলে বলেছেন,'এইবন‌ে ৩৭প্রদেশে দেশরস্তন্যপায়ী প্রাণী, ৪৬ প্রজাতির সরীসৃপ, ১৯ প্রজাতির উভচৈবচৌপৃপ রাণং ১১ প্রজাতির বিভাৎ বিরূদ্ধে দলে আছে অবাধবনে ব্যবহার করেছে গেরভা গের নেতাদের সঙ্গে যোগসাজ মানুষটি কাটা হচ্ছে। সম্পূর্ণ বিরোধিতা করছে।

কাঠ নেওয়ার কথা বলার কারণ জানাচ্ছেন না কেন দেখুন শীর্ষস্থানের বন সংরক্ষক ক্ষমতার কৃষ্টি দাস বলেন, 'গাছ কাটার সমতুল্য একটি প্রশ্নও না হোয়াবে উদ্বেগের বিষয়। হ‌‌ না।





Source link