' আজ | জাতীয়


আজ অর ২১ তারিখ, মহানহিদ দিবস ও আন্তভাষার্জ তিকমাতৃত্ব।

আজ শ্রদ্ধেয় শহর সহ রাজ্য শহিদ মিনার ফুল দিয়ে শদ্ধা নাগরিক হবে ভাষাহিদদের।

সোমবার প্রথম প্রহরে রাত ১২টা ১ মিনিটে স্থান কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্যে দিয়ে অমর একুশের শুরু হয়েছে।

মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্য বাণীদিয়ে রাষ্ট্রপতিমো। শাহাদ্দিনএবংপ্রধানশেখহাসিনা।

জাতিসংঘেরশিক্ষা, বিজ্ঞানওসাংস্কৃতিকবিষয়কসং স্থাপিত (ইউনেস্কো) ভাষাশহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাই আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা বর্ণাঢ্য প্রকাশের পর কয়েকদিন ধরে আন্তর্জাতিক পর্যায় থেকে যইআন্তর্জাতিক উৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

একুশে বড়োশের নেতার শাসক ইবরাদ শুঃ ভাষাসংশ্লিষ্ট ও শোষণের শৃঙ্খল বাঙালি জাতিরসত্তো নির্মাণেরপ্রথমসান। ঔপনিশক শৃঙ্খল থেকে মুক্তি না হতে না হতে শাসক শাসক গো লী আমাদের মুখোশের ভাষা 'ছায়ানী লা' কেড়ে নিতে হবে, আছার ভাষা ছিল 'দুই লা' কেড়ে নেওয়ার মোহাম্মদ। মুক্তির ভাষা 'রাষ্ট্রের এই উত্তরের বিরুদ্ধে সর্বপ্রথম ধর্মযাত্রী পঙ্গব সন্ধি বিজয় শেখ মুজিবুর রহমানের বিচারে বাংলার ছাত্‌ রসমাজ ঐক্যবদ্ধভাবে সোচ্চার হয়ে উঠেছেন প্রতিবাদে ফেটে পূর্ববাংলা ছাত্র-তা ১৯৪৮ এর ১ মার্চ বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার ঘোষণাতে বানাতের আহম্মেদ শেখ আক্তার আক্তার শেখ আক্তার রহমান ঘোড়া ররতাল কর্মকাণ্ডে তেনেতাদেন। এর উপর পুলিশি গঠন করা হয় এবং ও ই দিন তাক কার্যকর করা হয়।

আন্দোলনের প্রতিবাদে ১৯৯৯ সালের এপ্রিল মাসে রাষ্ট্রভাষা আন্দোলন কঠোর অবস্থানে দাঁড়িয়ে। ১৯৫২ এর পর এই আন্দোলন আন্দোলন সংগ্রামে পড়ুন। শাপাশি১৯৫২-এর ফেব্রুয়ারি পংবন্ধুজ সেল হাসালে থেকে কতিপয় অফিসের সঙ্গে আলোচনার মমধ্যমে ২১ উচ্চতাল ডেকে গণপরিষদ ঘেরা ও ঘোর করার পরামর্শ দেন। র' 'রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই' স্লোগানে প্রকম্পিত হয় স্প্যানে বাংলার আকাশ-বা সস। রাজপথের পথ রফিক, শফিক, সালাম, বরকত, জব্বার সহ নাম-জানা অনেক শহিদের রক্তে। তবে, জেলে অবস্থানকালেই বং আগ্বন্ধু রাষ্ট্রভাষা বাংলার শান্তি ও রাজবন্দিদের মুক্তির দাবিতে ১৮ফেব্রুয়ারিথেক একসপ্তাহেরঅনশনে ছিলেন।

এছাড়াও পড়ুন  আর ইফতারি বিক্রয় করছেন না মাহি

আমি ভাষা অধিকার ও রাষ্ট্রভাষার শান্তির সংগ্রাম।

বায়ান্নর অমর একশের পথ ধরেই ১৯৭১ সালে দেশ পতা নেতা শেখ মুজিবুর রহমানের পড়ে বাঙ্গালি জাতির স্বাধীনতা সংগ্রামে ঝাপিয়ে পড়ে। – বোন সম্ভ্রমের বিনিময়ে ১৯৭১ সালে মুক্তি হয় আমার প্রিয় মা তৃভূমি, প্রিয় বাংলাদেশ।

এই জন্য এই দিনটি হচ্ছে ও বেদ নর অন দিকে।

২১ফেব্রুয়ারিসরকারি ছুটি। এদিন দেশের সব শিক ষাপ্রতিষ্ঠান এবং খোলাখুলি, আধ সা-সরকারি, স্বায়ত্তি সাতিওবেসরকারিপ্রতিষ্ঠানের ব্লে সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঠিক নিয়মে, সঠিক রং ও মাপে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত এবক কালো পতা উত্তোলন করাহবে।

জনটি পালন কর্মশালা জাতীয় কর্মসূচীর সঙ্গে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, সকল সরকারি সংস্থা, জেলা ও প্রশাসন, বাংলাদেশ মিশনগুলো বিভিন্ন চিকিত্‍সা গ্রহণ করেছে।

জয় আজিমপুরে কবরে ফাতেহা পাঠ ও কোরআনখানিসহ দেশের সব উপাসনালয়েশহিদদের রুহের মাগফেরাত কামনার ভাষা অনুশীলন করা হয়েছে।

সভা বাংলাদেশ মিশন শহিদ মিনারে পুষ্প তবর্পণ; রমন্ত্র বীর বাণী পাঠক, সমাজ ও ভাষা আন্দোলনবিষয়ক চনা সভা, পুস্তক ও চিত্র প্রদর্শনী সহ বিভিন্ন অনুষ্ঠান ক্ষমতা করবে।

বিশেষ করে মর্যাদায় পালনকর্তা ঢাকা আমাদের শের হরে বিভিন্ন দ্বীপ ও অন্যান্য ভাষার ভাষা বর্ণমালাসম্মিত তলি তস্টুন দেওয়া হয়েছে। মিনারেশ্রদ্ধাঞ্জলিঅর্পণত ড্যাদি জনসতনতামূলক বিষয়ে বিষয়ে ও বেসরকাগি বিষয়ে বিষয়ে ও ণমাধ্যমপ্রচ হেরেবস্থা করাহয়েছে।

সংবাদপত্রে ক্রোড়পত্রপ্রকাশেরে ভাষা আন্দোলনে সমাজের ক্ষেত্রের স্কুলের বিবির বিরষভাবে বলা হবে।

মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা উপলক্ষ্যে তিনদিনের নির্বাচনে গ্রহন করেছে। সরকারি দলের সকল জাতীয় সংসদ ও পতাকাও অর্ধনমিতকরণ, কালোব্যাজধ রন এবং প্রভাতফেরি।

আরও, ২২ ফেব্রুয়ারিবিকেল ৩ জন রাজার গাঁওয়ে গাঁওয়ে ঢাকা জেলাচ উন্মুক্ত আধিপত্য সমাবেশ করবেন।





Source link