জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ বৃহস্পতিবার। ২০০৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ১৭ বছর পেরিয়েছে। বর্ণাঢ্য আয়োজনে আজ দিনব্যাপী এ কর্মসূচির আয়োজন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকালে জাতীয় পতাকার সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় পতাকা উত্তোলন করে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। এরপর বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের উদ্বোধন করেন উপাচার্য ইমদাদুল হক।

পরে প্রকাশনা উৎসব ও শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। শোভাযাত্রাটি পুরো ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে রায়সাহেব বাজার মোড় হয়ে আবার ক্যাম্পাসে এসে শেষ হয়। এরপর সকাল সাড়ে ১০টায় নতুন একাডেমিক ভবনের নিচতলায় বার্ষিক চারুকলা প্রদর্শনী এবং কেন্দ্রীয় অডিটরিয়ামে নাটক মঞ্চস্থ হয়। দুপুরে শুরু হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সংগঠনের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

আলোচনা অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ কামালউদ্দীন আহমদ বলেন, ‘জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক ও অবকাঠামো–সংকট দ্রুত শেষ করার কার্যক্রম শুরু হয়েছে। বিভিন্ন বিভাগ ও ইনস্টিটিউটের দক্ষ শিক্ষকদের কারণে বিশ্ববিদ্যালয়টি দেশের অন্যতম মডেল বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হয়েছে। ভালো পড়াশোনার পাশাপাশি আমরা নিয়মিত খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক কার্যক্রমেও অবস্থান করে নিচ্ছি। সব সম্ভব হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সবার পারস্পরিক সহযোগিতার কারণেই।’

উপাচার্য ইমদাদুল হক বলেন, দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের উদ্‌যাপনে শিক্ষার্থীরা উজ্জীবিত হবেন। বিশ্ববিদ্যালয়কে ধারণ করে তাঁরা আরও সামনে এগিয়ে যাবেন।

বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধুসভার সদস্যরা শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ, কেক কাটা, পাঠচক্র, প্রবন্ধলিখন, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, টি-শার্ট তৈরিসহ নানা আয়োজন অংশ নেন।

এছাড়াও পড়ুন  আমরা চাই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বিজ্ঞান ক্লাবে: নারায়ণগঞ্জের ডিসি ব্রেকিং নিউজ টুডে