আমাদের প্রতিবেদক: কুমিল্লা পৌর কর্পোরেশনের (কুসিক) ১৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগ নেতা সৈয়দ মো. সোহেল হত্যা মামলার প্রধান আসামি শাহ আলম ও তার সহযোগী হরিপদ সাহা পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।


পুলিশ জানায়, গুমতী বেড়িবাঁধে কয়েকজন অস্ত্রধারীর গোপন তথ্যের ভিত্তিতে কুমিল্লা জেলা পুলিশ ও ডয়েচে ব্যাংক পুলিশের একটি দল অভিযান চালায়।


এ সময় সন্ত্রাসীরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি করে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। এ সময় উভয়পক্ষের গুলিতে এক সন্ত্রাসী নিহত হয়। স্থানীয়রা তাকে শাহ আলম বলে চিনেন।


গুলিবিদ্ধ শাহ আলমকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।


শাহ আলম ডাবল হত্যা মামলার প্রধান আসামি, যার মধ্যে সিটি কাউন্সিলর সুহেলও রয়েছে। সে সুজানগর বউবাজার জেলার মৃত জানু মিয়ার ছেলে।


এর আগে মামলার আসামি সাবির ও সজ্জন পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন।


উল্লেখ্য, ২২ নভেম্বর মুখোশধারী গুন্ডারা কুসিক সিটি কাউন্সিলর সুহেলের ব্যক্তিগত অফিসে ঢুকে এলোপাতাড়ি গুলি করে হত্যা করে। এ ঘটনায় এমপি সুহেল ও তার সহযোগী হরিপদ সাহা গুলিবিদ্ধ হন। পরে নিহত এমপির ভাই মো. রুমান 11 জনের নাম বাদী হিসাবে এবং 8/10 জনকে বেনামী আসামী হিসাবে মামলা করেছে।


মামলায় এ পর্যন্ত ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারা হলেন সুমন, মাসুম, আশিকুর রহমান রকি, আলম মিয়া, জিসান ও অন্তু। অন্তু ছাড়া সবাইকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

কপিরাইট © সান নিউজ 24×7



Source link

এছাড়াও পড়ুন  গবেষণা মহিলাদের জন্য ফিটনেস জাদু প্রকাশ করে যা জানলে আপনি অবাক হবেন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here