বৃহস্পতিবার, ২০-জুন ২০১৯, ০৭:৩৬ অপরাহ্ন
  • অপরাধ
  • »
  • ঈদের পরের দিন সড়কে ঝড়লো ১৩ প্রাণ

ঈদের পরের দিন সড়কে ঝড়লো ১৩ প্রাণ

Sheershakagoj24.com

প্রকাশ : ০৬ জুন, ২০১৯ ১০:৪৩ অপরাহ্ন

শীর্ষকাগজ ডেস্ক: ঈদের পরের দিন বৃহস্পতিবার রাজধানী ঢাকা, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া, নওগাঁ, কুমিল্লা, ভোলা ও লালমনিরহাটে সড়ক দুর্ঘটনায় অন্তত ১৩ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও কমপক্ষে ২৫ জন।
বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এসব দুর্ঘটনাা ঘটেছে।
ঢাকা: রাজধানীর হানিফ উড়ালসড়কে এক ঘণ্টার ব্যবধানে সড়ক দুর্ঘটনায় দুজন মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত হয়েছেন তিনজন। তাঁদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ রাখা হয়েছে ঢাকা মেডিকেলের মর্গে।
নিহত দুজন হলেন মো. ইমন (২০) ও রিয়াজ আহম্মেদ (১৮)। ইমন রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। রিয়াজ এবার এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল।
আহত তিনজন হলেন মো. সোহাগ (১৯), মো. নাসিম (২০) ও সোহাগ (১৮)।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আবদুল খান বলেন, হানিফ উড়ালসড়কে আজ সড়ক দুর্ঘটনায় দুজন মারা গেছেন। দুজনই মোটরসাইকেলের আরোহী। একটি দুর্ঘটনা ঘটেছে উড়ালসড়কের সালাউদ্দিন হাসপাতাল বরাবর অংশে, অপরটি হানিফ উড়ালসড়কের সায়েদাবাদ অংশে।
সালাউদ্দিন হাসপাতাল বরাবর সড়ক দুর্ঘটনার ব্যাপারে ওয়ারী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নয়ন কুমার দাস বলেন, বেলা আড়াইটার দিকে এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারেন, তিন বন্ধু মিলে মোটরসাইকেলে করে শনির আখড়া থেকে গুলিস্তানের দিকে রওনা দেন। বেপরোয়া গতিতে চালিয়ে এসে উড়াল সড়কের রেলিংয়ে মোটরসাইকেলটি আঘাত করে। নিহত ইমনের মাথায় হেলমেট ছিল না। তিনি (ইমন) ছিলেন মোটরসাইকেলের পেছনের অংশে।
এসআই নয়ন কুমার জানান, মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারানোর পর গুরুতর আহত তিনজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আবদুল খান বলেন, হানিফ উড়ালসড়কে দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত তিনজনকে হাসপাতালে ভর্তি করার পর কর্তব্যরত চিকিৎসকেরা ইমনকে মৃত ঘোষণা করেন। বাকি দুজনের চিকিৎসা চলছে। ইমন, সোহাগ ও নাসিম পরস্পর বন্ধু। তাঁদের বাসা শনির আখড়ার বটতলা এলাকায়। ঈদে ঘুরতে বের হয়েছিলেন তাঁরা। শনির আখড়া থেকে তাঁদের যাওয়ার কথা ছিল শহীদ মিনার এলাকায়।
ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আবদুল খান বলেন, রিয়াজ এবং সোহাগের বাড়ি নারায়ণগঞ্জে। রিয়াজ মুগদায় তাঁর অসুস্থ মামাকে দেখতে মোটরসাইকেলে করে সোহাগকে নিয়ে হানিফ উড়ালসড়ক দিয়ে যাচ্ছিলেন। বেলা সাড়ে ৩টার দিকে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারালে তাঁরা গুরুতর আহত হন। তাঁদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। বিকেল ৫টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রিয়াজ মারা যান। তাঁর বন্ধু সোহাগের চিকিৎসা চলছে হাসপাতালে।

ওয়ারী থানার এসআই নয়ন কুমার দাস বলেন, বেপরোয়ায় গতিতে মোটরসাইকেল চালানোর কারণেই হানিফ উড়াল সড়কে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।
সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় প্রাইভেটকার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে অগ্রণী ব্যাংকের ম্যানেজার ও তার চালক নিহত হয়েছেন। 
আজ বৃহস্পতিবার সকালে হাটিকুমরুল-বনপাড়া মহাসড়কে উপজেলার হরিণচড়া বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। 
নিহতরা হলেন- ফরিদপুর জেলার বোয়ালমারী উপজেলার কলেন সরদিয়া গ্রামের আব্দুল মালেকের ছেলে ও অগ্রণী ব্যাংকের  ম্যানেজোর ইমারত আলী (৪২) এবং প্রাইভেটকার চালক রুবেল (৪৫)।
হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল কাদের জিলানী গণমাধ্যমকে বলেন, ব্যাংক কর্মকর্তা ইমারত বেলকুচির শ্বশুরবাড়ি থেকে প্রাইভেটকারে করে ফরিদপুরের দিকে যাচ্ছিলেন। তারা হরিণচড়া এলাকায় পৌঁছলে চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে প্রাভেটকারটি খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান ইমারত আলী। 
পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহত চালক রুবেলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান বলেও জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।
এছাড়াও সিরাজগঞ্জে পৃথক জায়গায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২ জননিহতের খবর পাওয়া গেছে।
বগুড়া: বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় দুই যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে একটি বাসের চালক নিহত হয়েছেন।  এ সময় আহত হয়েছেন আরও  ২০ জন। আহতদের উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর। তবে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত আহতদের পরিচয় জানা যায়নি। নিহত বাসচালকের নাম শহিদুল ইসলাম (৩৫)। তিনি উপজেলার কাফুরা গ্রামের মহির উদ্দিনের ছেলে বলে জানা গেছে।
আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার মহিপুর গবাদি ও প্রাণী উন্নয়ন খামারের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
শেরপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন কর্মকর্তা মো. রতন হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, রংপুর থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী অপু এন্টারপ্রাইজ নামে যাত্রীবাহী একটি বাস ওই এলাকায় পৌঁছালে বাসের সামনে চাকা ফেটে যায়।
এসময় শেরপুর থেকে ছেড়ে যাওয়া বগুড়াগামী যাত্রীবাহী করতোয়া গেটলক সার্ভিসের অপর একটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় এবং বাস দু’টি বাসের পাশে উল্টে যায়। পরে এ ঘটনায় আহতদের উদ্ধার করে শজিমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
নন্দীগ্রাম কুন্দারহাট হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) কাজল নন্দী গণমাধ্যমকে বলেন, দুর্ঘটনাকবলিত বাস দু’টি ঘটনাস্থলেই রয়েছে। অপু এন্টারপ্রাইজের বাসচালক ও হেলপার পলাতক রয়েছেন। অপর বাসচালক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত ১৮জন শজিমেকে ভর্তি রয়েছে। এদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর।
লালমনিরহাট: লালমনিরহাটে জমি চাষ করতে গিয়ে ট্রাক্টর উল্টে শাহানুর রহমান (৩২) নামে এক চালক নিহত হয়েছেন।
নিহত শাহানুর একই গ্রামের লেবু মিয়ার ছেলে।
আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে লালমনিরহাট সদর উপজেলার কুলাঘাট ইউনিয়নের শিবেরকুটি গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে। 
লালমনিরহাট সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহফুজ আলম গণমাধ্যমকে বলেন, জমি চাষ করে উঁচু রাস্তায় উঠতে গেলে ট্রাক্টর উল্টে পড়ে যায়। এতে গুরুতর আহত হন চালক শাহানুর রহমান। 
স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন বলেও জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।
ভোলা: ভোলার বোরহানউদ্দিনে যাত্রবাহী বাসের চাপায় মোটরসাইকেলের দুই আরোহী নিহত হয়েছেন।
বৃহস্পতিবার দুপুর সোয়া ২টার দিকে ভোলা-চরফ্যাশন সড়কের ইদারাহ মূল কেন্দ্র মাদ্রাসার কাছে ওই দুর্ঘটনা ঘটেছে।
নিহতরা হলেন, রুবেল(২৮) ও সোহাগ(২৫)। তারা দুজন সহোদর।
সোহাগ ও রুবেল দৌলতখান উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের তিন নাম্বার ওয়ার্ডের আবুল কালামের ছেলে।
বোরহানউদ্দিন থানার ওসি এনামুল হক ও প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, ভোলা-চরফ্যাশন সড়কের ইদারাহ মূল কেন্দ্র মাদ্রাসার কাছে ভোলা থেকে চরফ্যাশনগামী যাত্রীবাহী বাস রবিন চৌধুরী এক্সপ্রেস(পাবনা-জ-০৪-০০২১) চরফ্যশনের দিকে যাচ্ছিল।
এসময় রুবেল ও সোহাগকে বহনকারী মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই দুই ভাই মারা যান। পুলিশ ঘাতক বাসটিকে জব্দ করেছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।
কুমিল্লা: চান্দিনা উপজেলায় প্রাইভেটকার চাপায় মাঈনুদ্দিন জিসান (৮) ও কাউসার (১০) নামে দুই পথচারী শিশুর মৃত্যু হয়েছে। নিহত দু’জন সম্পর্কে চাচাতো ভাই। বুধবার বিকেলে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নূরীতলা আশা জুট মিলের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
হাইওয়ে পুলিশ ইলিয়টগঞ্জ ফাঁড়ির ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) মনিরুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, বিকেলে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা একটি প্রাইভেটকার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ঐ দুই পথচারী শিশুকে চাপা দিয়ে মহাসড়ক সংলগ্ন আশা জুট মিলের গেটে ঢুকে পড়ে। দুর্ঘটনার পরপর চালক পালিয়ে গেলেও ঘাতক প্রাইভেটকারটি জব্দ করা হয়েছে।
এতে গুরুতর আহত ঐ শিশু দু'টিকে তাৎক্ষণিকভাবে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালে নেওয়ার পথে তাদের মৃত্যু হয়।  এ ঘটনায় নিহত শিশু জিসানের বড় ভাই নূর উদ্দিন বাদী হয়ে চান্দিনা থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
নওগাঁ: নওগাঁয় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত রাকিবুল হাসান (২২) নামে এক যুবক চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। 
আজ বৃহস্পতিবার ভোরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে তিনি মারা যান। এর আগে বুধবার ঈদের দিন বিকেলে তিন বন্ধু রিকশায় নওগাঁ শহর থেকে সান্তাহারের দিকে যাওয়ার পথে ইয়াদ আলীর মোড়ে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হন।
নিহত রাকিবুল হাসান সদর উপজেলার শিমুলিয়া গ্রামের বেলাল হাসানের ছেলে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ঈদের দিন বিকেলে তিন বন্ধু রিকশায় করে ঘুরছিলেন। নওগাঁ শহর থেকে সান্তাহারের দিকে যাওয়ার পথে ইয়াদ আলীর মোড়ে রিকশার পেছনে ধাক্কা দেয় একটি মোটরসাইকেল। এতে রিকশা থেকে তিন বন্ধু রাস্তায় ছিটকে পড়ে। গুরুতর আহতাবস্থায় উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে নেয়া হয় তাদের। অবস্থার অবনতি হওয়ায় সন্ধ্যায় রামেকে নেয়া হলে বৃহস্পতিবার ভোরে রাকিবুল হাসান মারা যান।
নওগাঁ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহরাওয়ার্দী হোসেন নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, লাশ উদ্ধারের প্রক্রিয়া চলছে। এরপর পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।
শীর্ষকাগজ/প্রতিনিধি/জে