মঙ্গলবার, ১৩-নভেম্বর ২০১৮, ০২:০৮ পূর্বাহ্ন
  • খেলা
  • »
  • ‘ঢাকা টেস্টে ভিন্ন বাংলাদেশকে দেখবেন ইনশাআল্লাহ’

‘ঢাকা টেস্টে ভিন্ন বাংলাদেশকে দেখবেন ইনশাআল্লাহ’

Shershanews24.com

প্রকাশ : ০৬ নভেম্বর, ২০১৮ ০৭:২২ অপরাহ্ন

শীর্ষনিউজ ডেস্ক: ছন্নছাড়া ব্যাটিংয়ের কারণে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে ১৫১ রানের বড় ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ দল। এ ম্যাচের আগে চলতি বছরে টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স আশা জাগানিয়া ছিলো না মোটেও। কেননা বছরের শুরুতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টের পরে যে টেস্ট ক্রিকেটে একবারও দুইশ ছাড়ায়নি বাংলাদেশের ইনিংস।
তবু প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে ছিলো বলেই আশা ছিলো এবার হয়তো ঘুরে দাঁড়াবে বাংলাদেশ। ব্যাটসম্যানরা রাখবেন নিজেদের প্রতিভার ছাপ, সাথে বোলাররা মিলে এনে দেবেন দারুণ দুটি জয়। সিরিজ শুরুর আগে অন্তত ফেবারিট ছিল বাংলাদেশই। কিন্তু সিলেট টেস্টেই নগ্ন হয়ে গিয়েছে বাংলাদেশের ব্যাটিং দৈন্যতা।
আগের ছয় ইনিংসের ধারাবাহিকতায় এই দুই ইনিংসেও দুইশ পেরোয়নি বাংলাদেশের ইনিংস। বোলাররা বেশ ভালো করলেও ব্যাটসম্যানদের এমন ব্যর্থতায় পাঁচ বছর পর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হার দিয়েই শেষ হয়েছে সিলেটের অভিষেক। দেশের ক্রিকেটের ভক্ত-সমর্থকদের মতো দলের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও মানতে পারছেন না এমন হার।
তাই ম্যাচ শেষে সবার প্রত্যাশা পূরণে ব্যর্থ হওয়ায় দুঃখপ্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের অধিনায়ক। একইসাথে পরের ম্যাচে সবাই মিলে ঘুরে দাঁড়ানোর আশাবাদ ব্যক্ত করেন অধিনায়ক।
মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘অধিনায়ক হিসেবে এবং খেলোয়াড় হিসেবেও এটা মানা কষ্টকর। দর্শকরা এসেছে আমাদের ভাল খেলা দেখতে। আমরা পারফর্ম করতে পারিনি। এটার জন্য আমরা দুঃখিত। আমরা সব সময় প্রত্যাশা করি উনারা যেভাবে সব সময় সমর্থন করেন সেভাবে করবেন। বাংলাদেশের ক্রিকেটের আগেও এমন সময় এসেছে তখনও আমরা ঘুরে দাঁড়িয়েছি। আশা করি সবাই মিলে আবার ঘুরে দাঁড়াব।’
নিজেদের একাদশে মাত্র এক পেসার নিয়ে খেলায় ম্যাচের প্রথম দিন থেকে চলছে তুমুল সমালোচনা। প্রথম দিন শেষে ম্যাচের একমাত্র পেসার আবু জায়েদ রাহি জানিয়েছিলেন, পেসার কম থাকাটা কোনো ভুল সিদ্ধান্ত নয়। একই কথা বললেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহও।
তিনি বলেন, ‘আমাদের একাদশ নিয়ে যদি কথা বলতে হয় তাহলে আমি বলবো আমাদের এই একাদশটাই সেরা ছিল। কারণ পিচ শুস্ক ছিল। এর কারণে এখানে তিনটা স্পিনার খেলানো আমার কাছে এবং টিম ম্যানেজমেন্টের কাছে যথোপযুক্ত সিদ্ধান্ত মনে হয়েছে। প্লেয়ারদের পক্ষ থেকে এটুকুই বলতে পারি আমরা কোন কিছু সহজে নিব না, আমরা এখান থেকে শক্তভাবে ফিরে আসতে পারি। আমার মনে হয় একটা ইনিংসই যথেষ্ট। পরের (ঢাকা) টেস্টে ভিন্ন বাংলাদেশকে দেখবেন ইনশাআল্লাহ।’
শীর্ষনিউজ/এনএস