বৃহস্পতিবার, ১৯-জুলাই ২০১৮, ০৪:০৯ পূর্বাহ্ন

কেমন আছে ছাত্রলীগ নেত্রী ইফফাত জাহান এশা?

sheershanews24.com

প্রকাশ : ১২ এপ্রিল, ২০১৮ ০৮:৫২ অপরাহ্ন

আহমেদ আরিফ: নির্যাতিত বিক্ষুদ্ধ সাধরণ ছাত্রীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ নেত্রী ইফফাত জাহান এশাকে জুতার মালা পরিয়ে দেওয়ার আগের ২০-৩০ সেকেন্ড এশার আতংকে ভরা মুখ দেখে বেশ খারাপ লেগেছে। এশার গলায় জুতার মালা পরিয়ে দেওয়ার পর এশাকে নিয়ে যখন টানাটানি করছিল সাধারণ ছাত্রীরা তখন এশার চিৎকার 'আমার জামা আমার জামা'।
দুঃখজনক হলেও নির্মম বাস্তবতা হচ্ছে, জুতার মালা পরিয়ে দেওয়ার এক পর্যায়ে এশার জামা ধরে টানাটানি শুরু হওয়ায় এশার অন্তবার্স প্রদর্শিত হয়ে যাওয়ার বিব্রতকর ভিডিওটি অনলাইনে ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। এশার নামে ডজন ডজন ফেসবুক আইডি খুলে নানারকম যৌন সুড়সুড়ি মার্কা স্ট্যাটাস দেওয়া হচ্ছে। আর হাজার হাজার কমেন্টে এশাকে নানান ভাষায় গালাগালি করা হচ্ছে। যে যেভাবে পারছে ঘৃণা প্রকাশ করছে।
সব মিলিয়ে এশা আজ বড্ডই একা। যে ছাত্রলীগের প্রশ্রয়ে নেত্রী হয়ে ছাত্রলীগের জন্য সাধারণ ছাত্রীদের নির্যাতন করেছিল সে ছাত্রলীগও বিপদ সামাল দিতে ছুঁড়ে ফেলেছে ইফফাত জাহান এশাকে। চারদিকের তীব্র ঘৃণা, প্রতিবাদ, ধিক্কার সামাল দিতে বিশ্ববিদ্যালয় থেকেও বহিষ্কার করা হয়েছে এশাকে। অথচ বিশ্ববিদ্যালয়ের হল কৃর্তপক্ষের প্রশ্রয়ের কারণেই সাধারণ ছাত্রীদের প্রতি দানবীয় স্টাইলে নির্যাতন করার সুযোগ পেয়েছিল ইফফাত জাহান এশা। সুযোগ না পেলে একটি মেয়ে আর ৫০টি মেয়েকে নির্যাতন করার মত সাহস কোনদিনই পাবেনা।
বছরের পর বছর ধরে নির্যাতিত বিক্ষুদ্ধ ছাত্রীদের হাতে গণধোলাইয়ের শিকার ছাত্রলীগ নেত্রী- এই খবরটি যখন অনলাইনে প্রথম দেখি তখন অন্যদের মতই এ নিয়ে হাস্যরস করেছি। কিন্তু, এশার গলায় জুতার মালা পরিয়ে দেওয়ার ভিডিওতে এশার আতংকিত মুখ দেখার পর থেকেই অপরাধবোধে ভুগছি। কারণ, অন্য দশটা সাধারণ মেয়ের মত পোশাক পরিহিতা এশার এমন পরিস্থিতির জন্য দায়ী রাষ্ট্র ব্যবস্থা। নিজেদের ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে দেশের ভার্সিটিগুলোর হলে হলে সাধারণ ছাত্রীদের নির্যাতন করতে শত শত এশার জন্ম দিয়েছে ক্ষমতাসীনরা। যাদের কাজ হচ্ছে হলে মাস্তানী, গুন্ডাগিরি, চাঁদাবাজি থেকে শুরু করে মিটিং-মিছিলে সাধারণ ছাত্রীদের যেতে বাধ্য করা। হল ছাত্রলীগের নেত্রীরা সাধারণ ছাত্রীদের যত বেশী নির্যাতন করতে পারে ততই কদর বাড়তে থাকে কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে!
কেমন আছে আমজনার ঘৃণার প্রাচীরের ভেতর আটকে পড়া ইফফাত জাহান এশা? কেমন কাটছে এশার প্রতিটি সেকেন্ড? এশার গলায় জুতার মালা পরিয়ে দেবার আগ মুহূর্তের এশার যে করুণ চাহনি দেখেছি তা দেখে বিশ্বাস করতে ইচ্ছা হচ্ছে, এশা তার অপরাধের শাস্তি অনুধাবন করতে পেরেছে নিশ্চয়ই।
প্রিয় ইফফাত জাহান এশা, যে ভুলের কারণে আপনার অপমানিত হবার দৃশ্য সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে সে ভুল থেকে বেরিয়ে এসে আপনি অন্য দশটা মানুষের মতই সাধারণ জীবনে ফিরে আসুন। অন্যদের পথ দেখান। আমরা চাইনা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আর কোন এশার গলায় জুতার মালা ঝুলুক, আমরা চাইনা আর কোন এশার অন্তবার্স প্রদর্শিত হওয়ার ভিডিও অনলাইনে ভাইরাল হউক। আমরা চাইনা লজ্জা ডাকতে আর কোন এশা 'আমার জামা, আমার জামা' চিৎকার করুক।
শীর্ষনিউজ২৪ডটকম/ওআর